ওয়্যারলেস সিস্টেম দেহের অভ্যন্তরীণ যন্ত্র কন্ট্রোল করতে পারবে!

বর্তমান দুনিয়া তারবিহীন প্রযুক্তির দুনিয়া। বিজ্ঞান এগিয়ে গিয়েছে অনেক। মোবাইল ফোনের কথাই ধরুন। যখন সেলুলার মোবাইল ফোনের যাত্রা শুরু হলো তখন মোবাইলের উপরে অ্যান্টেনার মত কিছু একটা থাকত, লম্বা আকারের। হ্যাঁ, ওটা অ্যান্টেনার কাজই করত বলা যায়। নেটওয়ার্ক-এর অবস্থাও ছিল প্রচুর খারাপ। এক জায়গা দাঁড়িয়ে কথা বলছেন; জায়গা ছেড়েছেন তো কল কেটে যাবে। তবে এই সময়ে সেসব চিন্তায় আমরা আর মশগুল নই। এখন সময় অত্যাধুনিক প্রযুক্তির। আমাদের দেশ ইতিমধ্যে 4G মোবাইল নেটওয়ার্ক-এর আওতায় চলে এসেছে।

বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তরের বিজ্ঞানীরা কাজ করে যাচ্ছে নতুন নতুন আবিষ্কারের লক্ষ্যে। সম্প্রতি “Massachusetts Insitute of Technology” এর একটি রিপোর্ট-এ বলা হয়েছে – শরীরের মধ্যে কোনো বস্তুকে (মেশিন বা যন্ত্র) ওয়্যারলেস পদ্ধতিতে পরিচালনা করা যাবে।

MIT এর গবেষকগণ এবং কয়েকজন বিজ্ঞানী মিলে একটি নতুন প্রযুক্তি আবিষ্কার করেছে। এ প্রযুক্তির মাধ্যমে দেহের মধ্যে অবস্থিত কোনো ডিভাইসে বা যন্ত্রে পাওয়ার সাপ্লাই করা যাবে ও যন্ত্রটি পরিচালনা করা যাবে। এ ধরণের যন্ত্র দেহের অভ্যন্তরে ওষুধ প্রয়োগ, দেহের অভ্যন্তরীণ অবস্থা সম্বন্ধে জানা সহ বিভিন্ন কাজে ব্যবহৃত হতে পারে। এছাড়াও বৈদ্যুতিক সংকেত বা আলো ব্যবহার করেও রোগ নিরাময় করা যেতে পারে।

শরীরের অভ্যন্তরীণ যন্ত্র রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি ওয়েভের মাধ্যমে কন্ট্রোল করা যায়। এই ওয়েভ মানবদেহের কোষের অভ্যন্তরে সহজে প্রবেশ করতে পারে। সাধারণ প্রাণির উপর একটি পরীক্ষা করা হয়। গবেষকগণ এটি দেখাতে সক্ষম হন যে, এ প্রযুক্তির মাধ্যমে কোষের প্রায় ১০ সেন্টিমিটার গভীরে অবস্থিত কোনো যন্ত্র পাওয়ার পেতে পারে; এসময় মূল ডিভাইসটির দূরত্ব রাখা হয় শরীর থেকে ১ মিটার দূরে।

MIT-এর মিডিয়া ল্যাবের একজন অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর বলেছেন, “যদিও এসব ছোট যন্ত্রগুলোর (দেহের অভ্যন্তরীণ) কোনো ব্যাটারি থাকে না, তবুও আমরা সেগুলো দেহের বাইরে থেকে পরিচালনা করতে পারি। এটি মেডিকেলে সম্পূর্ণ নতুন একটি দিন উন্মোচন করেছে।”

যেহেতু, যন্ত্রটিতে (দেহের অভ্যন্তরীণ) কোনো ব্যাটারি স্থাপনের প্রয়োজন হয় না, সেগুলি আরো বেশি ছোট আকারে তৈরি করা সম্ভব। এক গবেষণায় দেখা গেছে, এটি একটি চালের দানার চেয়েও ছোট আকারে তৈরি করে ব্যবহার করা সম্ভব।

 

 

[তথ্যসূত্রঃ এখানে]

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>